চাকরি, টিউশনি ও অন্যান্য

চাকরি, টিউশনি ও অন্যান্য

মোশাররফ করিম
আমাকে ইশারায় দেখিয়ে অনেকেই বলেছিল, ‘ওকে দিয়ে অভিনয়-টভিনয় হবে না।’ এমন কান কথায় পড়ে শুরুর দিকে কয়েকটি নাটক থেকে বাদও পড়েছি! তবু চাকরির জন্য সিভি নিয়ে দৌড়াইনি। অভিনয়ের ঘোরেই ব্যস্ত রেখেছি নিজেকে।

করপোরেট হাউসে ভালো বেতনে চাকরির লোভ আমার ভেতর কখনোই জন্মায়নি। ছাত্রজীবন থেকেই টিউশনি করে কিছু টাকা পেয়েছি। সেটা চাকরির চেয়ে কম ছিল না আমার কাছে। মাস শেষে পাওয়া টিউশনির টাকা চাকরির বেতনের মতোই মনে হতো।

টাকা পেয়ে বন্ধুদের নিয়ে দল বেঁধে খেতাম। ঢাকা শহর আমার কাছে সবসময়ই আজব লাগত। ভালো লাগত, তাই রিকশা ভাড়া করে ইচ্ছামতো ঘুরতাম। আর একটা জিনিস না করলে মনটাকে বোঝাতে পারতাম না। সেটা হচ্ছে, বেইলি রোডের সাগর পাবলিশার্সে ঢুঁ মারা। খাবার আর ঘোরাঘুরির শেষে পকেটটা খালি করে আসতাম সাগর পাবলিশার্সে।

তাছাড়া টিভি নাটক করে প্রথম টাকা পাই ‘অতিথি’তে। সেই টাকা দিয়েও আগের মতো খেলাম, ঘুরলাম, বই কিনলাম। তবে বড় একটা কাজও করেছি। সেটা হচ্ছে নিজের জন্য একটা আলমারি কিনেছি। নাটকের টাকায় এটাই আমার প্রথম বড় কিছু কেনা!

অভিনয়টাই আমার চাকরি। একসময় নেশা ছিল, তারপর এখন পেশা।

হ অনুলিখন : জিসান মাহদি

You may also like...